আজ শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:৫১ অপরাহ্ন

Logo
শিরোনামঃ
এবার লেবানন থেকে ইসরায়েলে ২০টি রকেট নিক্ষেপ

এবার লেবানন থেকে ইসরায়েলে ২০টি রকেট নিক্ষেপ

 

এবার লেবানন থেকে ইসরায়েলে ২০টি রকেট নিক্ষেপ

পল্লী জনপদ ডেস্ক॥

হামাসের কাসাম ব্রিগেড বলেছে যে তারা লেবানন থেকে দু’টি ইসরায়েলি বসতিতে ২০টি রকেট নিক্ষেপ করেছে। আলাদাভাবে লেবাননের হিজবুল্লাহও বলেছে যে তারা গাইডেড ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে ইসরায়েলের হানিতায় কয়েকটি সেনা ব্যারাকে হামলা করেছে। এতে বেশ কয়েকজন ইসরায়েলি হতাহত হয়েছে। ইসরায়েলের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইয়োভ গ্যালান্ট বলেছেন, হিজবুল্লাহর সঙ্গে ইসরায়েলের যুদ্ধের কোনো আগ্রহ নেই। হিজবুল্লাহ যদি সংযত থাকে, তাহলে সীমান্তের পরিস্থিতি আগের মতোই রাখবে ইসরায়েল।

গত সপ্তাহে ইসরায়েলে ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী গোষ্ঠী হামাসের হামলার পর থেকে ইসরায়েল-লেবানন সীমান্তজুড়ে হিজবুল্লাহ বিক্ষিপ্তভাবে গোলাবর্ষণ করে আসছে। এর ফলে গাজার পাশাপাশি লেবাননের সঙ্গে ইসরায়েলের নতুন সংঘাত তৈরি হওয়ার শঙ্কা দেখা দিয়েছে। হামাসের সঙ্গে ইসরায়েলের যুদ্ধে লেবাননের সশস্ত্র এসব গোষ্ঠী যোগ দিলে তা বিস্তৃত সংঘাতে পরিণত হতে পারে বলে সতর্ক করে দিয়েছে ইরান।

এর আগে ‘মিডল ইস্ট আই’ জানিয়েছে, মারকাভা ট্যাংকে অবস্থান করা কয়েকজন ইসরায়েলি বাহিনীর সদস্যকে হতাহত করেছে হিজবুল্লাহ। হিজবুল্লাহ বলেছে যে তারা লেবাননের দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর আইতা আল-শাবের কাছে আল-রাহেব সামরিক সাইটে একটি ইসরায়েলি মারকাভা ট্যাংককে লক্ষ্যবস্তু করেছে। সূত্র : আল-জাজিরা, মিডল ইস্ট আই, বিবিসি

গাজা দখল করা হবে বিরাট ভুল : বাইডেন

আকাশ, নৌ ও স্থলপথে অবরুদ্ধ গাজায় সামরিক অভিযান চালাতে চূড়ান্ত প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে ইসরায়েলি বাহিনী। ভূ-রাজনৈতিকদের মতে, গাজাকে পুরোপুরি দখলে নিতে পারে তারা। এমন প্রশ্নে মিত্র ইসরায়েলকে হুঁশিয়ারি দিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, ‘গাজা দখল করা হবে বিরাট ভুল পদক্ষেপ।’

মার্কিন সম্প্রচারমাধ্যম সিবিএসের ‘৬০ মিনিট’- প্রোগ্রামে দেওয়া বাইডেনের সাক্ষাৎকারটি প্রচারিত হয়েছে স্থানীয় সময় রবিবার। ইসরায়েলের সামরিক অভিযানের প্রস্তুতি নিয়ে সঞ্চালক স্কট পেলের প্রশ্নে বাইডেন বলেন, ‘গাজায় যা ঘটছে হামাস ও গোষ্ঠীটির সামরিক উপাদানগুলো ফিলিস্তিনি জনগণের প্রতিনিধিত্ব করে না।’ তবে হামাসকে সম্পূর্ণরূপে নির্মূল করতে চান বলেও সাক্ষাৎকারে মন্তব্য করেন বাইডেন।

হামাসের হাতে বন্দি ১৫০ ইসরাইলি :

ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাস ১৫০ জন মানুষকে বন্দি করেছে বলে নিশ্চিত করেছে ইসরাইলি সামরিক বাহিনী। গত সপ্তাহে ইসরাইলে নজিরবিহীন হামলার পর তাদের আটক করে হামাস।

এএফপির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত সপ্তাহে হামাস ইসরাইলে মারাত্মক হামলা চালানোর পর ফিলিস্তিনি স্বাধীনতাকামী এই গোষ্ঠীর হাতে ১৫০-এর বেশি বন্দি হয়েছেন বলে রোববার নিশ্চিত করেছে ইসরাইলি সামরিক বাহিনী।

ইসরায়েলের হয়ে যুদ্ধে যেতে চায় বহু ভারতীয় :

ভারতে নিযুক্ত ইসরায়েলের রাষ্ট্রদূত নওর গিলন বলেছেন বহু ভারতীয় তাদের সঙ্গে সহমর্মিতা প্রকাশ করেছেন এবং এজন্য তিনি বেশ আপ্লুত। সংবাদ সংস্থা এএনআইকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে তিনি বলেন, হামাসের সঙ্গে তার দেশের চলমান যুদ্ধে যোগ দেওয়ার জন্য বহু ভারতীয় ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন।

গিলন বলেন এত সংখ্যক ভারতীয় এই যুদ্ধে স্বেচ্ছাসেবক হতে চেয়েছেন যা দিয়ে আরও একটা বাহিনীই বানিয়ে ফেলা যায়। কিন্তু এত সংখ্যক ভারতীয় কেন যুদ্ধে যেতে চাইছেন বা ইসরায়েলের পক্ষ নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে পোস্ট করছেন? অনেকের মনেই এই প্রশ্ন উঠেছে।

সংবাদ সংস্থা এএনআইকে দেওয়া সাক্ষাতকারে নওর গিলন বলেছেন, আমার কাছে এটা খুবই আশাপ্রদ ঘটনা এবং খুবই আবেগের ব্যাপার। শনিবার যখন পুরো চিত্রটাই পরিষ্কার হয়নি সে সময়ই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কাছ থেকে আমরা যে পরিমান সমর্থন পেয়েছি তা ভুলবার নয়। তিনি বিশ্বের নেতাদের মধ্যে একজন, যিনি খুব স্পষ্ট ভাষায় নিন্দা জানিয়ে টুইট করেছেন। এটা আমরা কখনোই ভুলব না।

কাঁদছে গাজা, ওদের কান্নার জবাব দিন :

গাজায় জরুরিভিত্তিতে ওষুধ সহায়তার জন্য বাংলাদেশের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ঢাকায় নিযুক্ত ফিলিস্তিনি রাষ্ট্রদূত ইউসেফ এসওয়াই রামাদান। তিনি বলেছেন, হাসপাতালে কোনো ওষুধ নেই। অনেক হাসপাতাল ধ্বংস করা হয়েছে। আহত নয় হাজার মানুষের চিকিৎসা এখন জরুরি ভিত্তিতে প্রয়োজন। পুরো গাজা এখন কাঁদছে, ওদের কান্নার জবাব দিন। ফিলিস্তিনি রাষ্ট্রদূত রোববার যুগান্তরের সঙ্গে একান্ত আলাপকালে এসব কথা বলেন।

গাজার হাসপাতালগুলোতে ২৪ ঘণ্টার জ্বালানি অবশিষ্ট আছে : জাতিসংঘ

ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা ভূখণ্ডের হাসপাতালগুলোতে মাত্র ২৪ ঘণ্টার জ্বালানি অবশিষ্ট রয়েছে বলে সতর্ক করেছে জাতিসংঘ। অর্থাৎ গাজার হাসপাতালগুলোতে থাকা জ্বালানির মজুদ আগামী ২৪ ঘণ্টা বা এর কিছু কম বা বেশি সময়ের মধ্যে ফুরিয়ে যেতে পারে। এতে করে ঝুঁকির মুখে পড়তে পারে হাজার হাজার রোগীর জীবন। সোমবার (১৬ অক্টোবর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গাজার হাসপাতালগুলোতে যে পরিমাণ জ্বালানির মজুদ রয়েছে তাতে আর মাত্র ২৪ ঘণ্টা কাজ চলতে পারে বলে জাতিসংঘ সতর্ক করেছে। জাতিসংঘের মানবিক কার্যালয় তার ওয়েবসাইটে বলেছে, ‘জ্বালানি ফুরিয়ে যাওয়ার ফলে ব্যাকআপ জেনারেটর বন্ধ হয়ে গেলে গাজার হাজার হাজার রোগীর জীবন ঝুঁকির মধ্যে পড়বে।’

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017
Developed By

Shipon