আজ শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০:০৬ পূর্বাহ্ন

Logo
শিরোনামঃ
চোরাইকৃত মোবাইল উদ্ধারে অনন্য নজির দেখালেন বোরহানউদ্দিন থানার ওসি মনির হোসেন মিয়া

চোরাইকৃত মোবাইল উদ্ধারে অনন্য নজির দেখালেন বোরহানউদ্দিন থানার ওসি মনির হোসেন মিয়া

 

চোরাইকৃত মোবাইল উদ্ধারে অনন্য নজির দেখালেন বোরহানউদ্দিন থানার ওসি মনির হোসেন মিয়া

বোরহানউদ্দিন প্রতিনিধি ॥

“পুলিশই জনতা-জনতাই পুলিশ” ভোলার বোরহানউদ্দিন থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মনির হোসেন মিয়ার নেতৃত্বে চোরাইকৃত মোবাইল উদ্ধারের অনন্য নজির দেখালেন বোরহানউদ্দিন থানা পুলিশ।

তথ্যসূত্রে জানাযায়, বোরহানউদ্দিন থানায় গত ০২ সেপ্টেম্বর, ২০২২ইং তারিখে যোগদান করার পর থেকে এ যাবৎকালীন শতাধিক চোরাইকৃত মোবাইল উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করেন তিনি। এতে তার সফলতা প্রায় শতভাগ।

এ বিষয়ে বোরহানউদ্দিন থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মনির হোসেন মিয়া বলেন, বোরহানউদ্দিন থানায় যোগদান করার পর থেকে চোরাইকৃত মোবাইলসহ যে কোন মামলা এবং জিডির বিষয়ে জনগণকে কোন খরচ করতে হয়নি। বোরহানউদ্দিন উপজেলাবাসীর আস্থার স্থলে পরিণত হয়েছে বোরহানউদ্দিন থানা। এ থানায় মামলা ও জিডি করতে কাউকে হয়রানির শিকার হতে হয়নি।

তিনি বলেন, যে কোন চোরাই পণ্যই উদ্ধার করতে একটু সময় লাগে কিন্তু পুলিশ বাহিনীর সদস্যদের চেষ্টা অব্যাহত থাকে যতদ্রুত সম্ভব চোরাই পণ্য উদ্ধার করা যায়।

তিনি আরও বলেন, ভোলা জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার মো. মাহিদুজ্জামান (বিপিএম) মহোদয়ের নির্দেশক্রমে, আমরা জনগণের সেবায় নিজেদেরকে উজার করে দিচ্ছি যাহাতে পুলিশ জনগণের সেবার আস্থার স্থানে পরিণত হয়েছে। তিনি বলেন আমাদের পুলিশ কনস্টেবল হাসানুজ্জামান চোরাই মোবাইল উদ্ধারে যথেষ্ট পারদর্শী। আমি কনস্টেবল হাসানুজ্জামানের উন্নতি কামনা করছি।

উপকারভোগীদের কয়েকজন বলেন, বোরহানউদ্দিন থানা একটি আধুনিক থানা। আমরা সবসময়ই যেকোনো বিষয়ে থানায় গেলেই খুব সহজেই তা সমাধান হয়ে যায়। সবকিছু সমাধানের একমাত্র কারণ থানার অফিসার ইনচার্জ মনির হোসেন মিয়া খুবই ভালো মনের মানুষ। তিনি সর্বদা জনগনের পাশে থাকেন। তা না হলে আমরা জীবনেও হারিয়ে যাওয়া মাল ফেরত পেতাম না।

আমরা বোরহানউদ্দিন উপজেলাবাসী একজন যোগ্য অফিসার ইনচার্জ পেয়েছি। আমরা তার সর্বাঙ্গীন উন্নতি কামনা করছি।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017
Developed By

Shipon