আজ বুধবার, ১৭ Jul ২০২৪, ১০:৫৪ অপরাহ্ন

Logo
‘ইসির নিবন্ধন না পেয়ে রাজনীতির মাঠে সক্রিয়রা নিরাশ’

‘ইসির নিবন্ধন না পেয়ে রাজনীতির মাঠে সক্রিয়রা নিরাশ’

 

‘ইসির নিবন্ধন না পেয়ে রাজনীতির মাঠে সক্রিয়রা নিরাশ’

পল্লী জনপদ ডেস্ক॥

দৈনিক সমকালের প্রধান শিরোনাম, “অচেনা দুই দলে হাসি, আলোচিতরা নাখোশ”। খবরে বলা হচ্ছে, নির্বাচন কমিশন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী আন্দোলন বিএনএম এবং বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টি বিএসপি নামে এমন দুই দলকে নিবন্ধন দিয়েছে যাদের নাম আগে তেমন শোনা যায়নি।

ইসির নিবন্ধন পেতে যেসব শর্ত পূরণ করতে হয়, নিবন্ধন পাওয়া দল দুটি এসব শর্ত কতটা পূরণ করতে পেরেছে তা নিয়ে রয়েছে নানা প্রশ্ন।

তবে, আলোচিত অনেক দল, যারা রাজনীতির মাঠে সক্রিয়, নিবন্ধন না পেয়ে তারা নিরাশ হয়েছেন। নিবন্ধনের দৌড় থেকে ছিটকে পড়াদের তালিকায় সরকার বিরোধী হিসেবে পরিচিত মাহমুদুর রহমান মান্নার নাগরিক ঐক্য, ভিপি নুরের গণঅধিকার পরিষদ এবং জামায়াতে ইসলামী থেকে বেরিয়ে আসা নেতাদের নিয়ে গঠিত এবি বা আমার বাংলাদেশ পার্টিও রয়েছে।

গত ১০ মাসেরও বেশি সময় ধরে যাচাই-বাছাই শেষে ১২টি রাজনৈতিক দলের ছোট তালিকা করা হয়েছিল।

দেশ রূপান্তরের প্রধান শিরোনাম “দুদকের জালে দেড়শ নেতা”। খবরে বলা হয়েছে, জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে দুর্নীতি দমন কমিশন-দুদক বিভিন্ন দলের নেতাদের বিরুদ্ধে নতুন করে তদন্ত শুরু করছে।

প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের অন্তত দেড়শ নেতার বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময়ে আসা অভিযোগ যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে। শিগগিরই এ নেতাদের নামে নোটিস পাঠানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে।

এদিকে, ক্যাসিনোকাণ্ডে জড়িতদের বিষয়ে দুদকে আসা অভিযোগগুলোও নতুন করে আমলে নিচ্ছে দুদক। আবার কোনো কোনো নেতা নিজেদের নামে নোটিস এড়াতে প্রভাবশালী মহলে তদবিরও করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

যুগান্তরের প্রধান শিরোনাম, “তিন অবরোধে স্থবির ঢাকা”। প্রতিবেদনে রোববার ঢাকায় শিক্ষক, চিকিৎসক ও রেল শ্রমিকদের আন্দোলনের কারণে রাস্তা প্রায় অচল হয়ে পড়ার বিষয়টি সামনে আসে।

এ তিন আন্দোলনের কারণে সড়কের যানজটে নগরবাসী চরম ভোগান্তিতে পড়েন। যার প্রভাবে সারা দেশে পড়ে। বিশেষ করে সারা দেশে রেল যোগাযোগ বিঘ্নিত হয়। ২৫টি ট্রেনের শিডিউল বিপর্যয় ঘটে।

প্রথমত, মাধ্যমিক শিক্ষা জাতীয়করণের দাবিতে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে সড়ক অবরোধ করে শিক্ষকরা কর্মসূচি পালন করেন। এতে গুলিস্তান-মতিঝিলসহ অন্যসব স্থানে যোগাযোগ ব্যবস্থা ভেঙে পড়ে।

ভাতা বাড়ানোর দাবিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) পোস্টগ্র্যাজুয়েট চিকিৎসকরা শাহবাগ মোড় দখল করেন। এতে মৎস্যভবন, ফার্মগেট, ধানমন্ডি-এলিফ্যান্ট রোড-ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা স্থবির হয়ে পড়ে।

অন্যদিকে রেল শ্রমিকরা প্রথমে কাওরান বাজারের সড়ক অবরোধ করে কর্মসূচি শুরু করেন। পরে তারা রেললাইন অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন। বেলা ৩টার পর অবরোধ তুলে নেওয়া হয়। ততক্ষণে ২৫টি ট্রেনের শিডিউল লন্ডভন্ড হয়ে পড়ে।

বুড়িগঙ্গায় দুর্ঘটনা নিয়ে দৈনিক ইত্তেফাকের প্রধান শিরোনাম, “বুড়িগঙ্গায় বাল্কহেডের ধাক্কায় ডুবলো ওয়াটার বাস,”। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বালুবোঝাই বাল্কহেডের ধাক্কায় রাজধানীর লালকুঠি ঘাট থেকে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের তেলঘাটগামী একটি ওয়াটার বাস অর্ধশতাধিক যাত্রীসহ ডুবে গেছে।

এতে ২৫ থেকে ৩০ জন যাত্রী নিখোঁজ রয়েছেন। গতরাত সাড়ে আটটার দিকে এ ঘটনা ঘটে বলে জানা গিয়েছে। নিচের যাত্রীদের বেশির ভাগই ডুবে গেছে বলে দাবি করছেন বেঁচে ফেরা যাত্রীরা।

খবর পেয়ে রাত নয়টার দিকে উদ্ধার অভিযান শুরু করে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল।

ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ে দ্য ডেইলি স্টার প্রধান শিরোনাম, “Spectre of deadliest dengue year loom”। প্রতিবেদনে মূলত, এ বছরের ডেঙ্গু যে জনমনে আতঙ্ক ছড়িয়েছে সেই খবরটি তুলে আনা হয়।

বলা হচ্ছে, বিশেষজ্ঞরা প্রাদুর্ভাবের জন্য ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের প্রাথমিক ব্যবস্থা নিতে ব্যর্থতার জন্য দায়ী করেছেন। ভাইরাল রোগটি এখনও ২০১৯ সালে পরিস্থিতিতে পৌঁছায়নি। তবে আগস্ট-সেপ্টেম্বর মাসে এর প্রাদুর্ভাব বাড়ছে।

কীটতত্ত্ববিদ এবং চিকিৎসা বিশেষজ্ঞরা আশঙ্কা করছেন যে এবার ডেঙ্গু রোগী এবং মৃত্যুর সংখ্যা ২০১৯ সালের রেকর্ড অতিক্রম করতে পারে। ওই বছর , এক লাখের বেশি মানুষ সংক্রামিত হয়েছিল এবং ১৭৯ জন মারা গিয়েছিল।

নিউ এইজের প্রধান শিরোনাম, “Doctors to halt pvt practice, surgery” অর্থাৎ চিকিৎসকরা প্রাইভেট প্র্যাকটিস, সার্জারি বন্ধ রাখবে। মূলত ঢাকা সেন্ট্রাল হাসপাতালের দুই চিকিৎসককে গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে ১৭-১৮ জুলাই দেশব্যাপী প্রাইভেট চেম্বার ও সার্জারি বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশের প্রসূতি ও গাইনোকোলজিক্যাল সোসাইটি।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে যে দোষী প্রমাণিত হওয়ার আগে কারাগারে ডাক্তারদের দেখা দুঃখজনক। তারা অবিলম্বে হাসপাতালের অপারেশন থিয়েটার ও ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিট চালুর দাবি জানান।

সোসাইটি অফ সার্জনস অফ বাংলাদেশ সহ আরও বেশ কয়েকটি চিকিত্সক পেশাজীবী সংস্থা এই প্রতিবাদ কর্মসূচির সাথে একাত্মতা প্রকাশ করেছে।

শনিবার সোসাইটি অফ সার্জনস অফ বাংলাদেশও এর সভাপতি এবিএম খুরশিদ আলম, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালকও স্বাক্ষরিত একটি বিবৃতি জারি করে, প্রতিবাদ কর্মসূচির সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে।

এদিকে বৈদেশিক মুদ্রা মজুদ নিয়ে প্রথম আলো প্রধান শিরোনাম “শর্ত অনুযায়ী রিজার্ভ নেই বাংলাদেশের” । প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, বাংলাদেশকে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল ঋণ দেয়ার ক্ষেত্রে যে শর্ত দিয়েছিল তার চেয়ে দেশটি পিছিয়ে আছে।

ঋণের অন্যতম শর্ত ছিল যে জুনে প্রকৃত বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ থাকতে হবে ২,৪৪৬ কোটি ডলার। বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, গত জুনে দেশের মোট রিজার্ভ ছিল ৩১২০ কোটি ডলার।

আর আইএমএফ-এর হিসাব পদ্ধতি বিএম ৬ (ব্যালেন্স অব পেমেন্ট ইন্টারন্যাশনাল ইনভেস্টমেন্ট পজিশন) অনুযায়ী রিজার্ভ ছিল ২৪৭৫ কোটি ডলার। এর বাইরে প্রকৃত রিজার্ভের আরেকটি তথ্য আছে যা প্রকাশ করেনি তারা।

ফলে এখন রিজার্ভের তিন ধরনের তথ্য পাওয়া যাচ্ছে যেমন মোট রিজার্ভ, বিপিএম ৬ অনুযায়ী রিজার্ভ, এবং প্রকৃত রিজার্ভ। প্রকৃত রিজার্ভ দিয়ে এখন তিন মাসের আমদানি ব্যয় পরিশোধ করা যাবে।

সাধারণভাবে তিন মাসের আমদানি ব্যয়ের সমান রিজার্ভ থাকাটা অর্থনীতির জন্য স্বস্তিদায়ক। শর্তমতো প্রকৃত রজিার্ভ না থাকায় আইএমএফ এর ঋণের কিস্তি আটকে যাওয়ায় আশঙ্কা রয়েছে।

গভীর সমুদ্রে তেল-গ্যাস অনুসন্ধান নিয়ে কালের কণ্ঠের প্রধান শিরোনাম, “মার্কিন কোম্পানি এক্সন মবিলের প্রস্তাব নিয়ে এগোচ্ছে সরকার”। প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, বাংলাদেশের গভীর সমুদ্রে তেল ও গ্যাস অনুসন্ধানে প্রস্তাব দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের বহুজাতিক কোম্পানি এক্সন মবিল।

সরকার তাদের প্রস্তাবকে ইতিবাচক ভেবে দেখছে বলে প্রতিবেদনে বলা হয়। এক্সন মবিলের প্রস্তাব খতিয়ে দেখতে এবং তাদের সঙ্গে আলোচনায় বসতে উচ্চ পর্যায়ের একটি কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

কমিটিতে আন্তর্জাতিক মানের আইনজীবী ও মধ্যস্থতাকারী, প্রযুক্তি বিষয়ে পরামর্শদাতার মতো বিশেষজ্ঞরা থাকবেন বলে জানা গিয়েছে। সমুদ্রে তেল ও গ্যাস অনুসন্ধানে এ পর্যন্ত দুই দফা প্রস্তাব পাঠিয়েছে কোম্পানিটি।

ব্যাংকের স্কোর নিয়ে বণিক বার্তার প্রধান শিরোনাম, “শীর্ষে ইবিএল, অনুক্রমে ব্র্যাক ডাচ্-বাংলা, সিটি ও প্রিমিয়ার”। প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, ডলার ও তারল্য সংকটের মধ্যেও গত বছর প্রত্যাশার চেয়েও ভালো করেছে দেশের কিছু ব্যাংক। আবার আবার ভালো অবস্থানে থাকা কিছু ব্যাংক র‍্যাংকিংয়ে পিছিয়ে পড়েছে।

২০২২ সালের আর্থিক প্রতিবেদনের ভিত্তিতে এবার ৩৫টি ব্যাংক নিয়ে দশম র‍্যাংকিং তৈরি করা হয়েছে। এক্ষেত্রে বৈশ্বিক মানদণ্ড অনুসরণ করে সাতটি নির্দেশক স্কোরিংয়ের মাধ্যমে ব্যাংকগুলোর আর্থিক কার্যক্রমের মূল্যায়ন করা হয়েছে।

সেখানে গত বছরের র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষস্থানে থাকা ইস্টার্ন ব্যাংক লিমিটেড (ইবিএল) এবারো শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে। গতবার ষষ্ঠ স্থানে থাকা ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড এবার দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে। গতবারের মতো এবারো তৃতীয় স্থান ধরে রেখেছে ডাচ্-বাংলা ব্যাংক লিমিটেড।

শীর্ষ দশে থাকা বাকি ব্যাংকগুলো হচ্ছে দ্য সিটি ব্যাংক, প্রিমিয়ার ব্যাংক, ব্যাংক এশিয়া, ট্রাস্ট ব্যাংক, প্রাইম ব্যাংক, পূবালী ব্যাংক ও ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড।

ক্রিকেটে ভারতের সাথে বাংলাদেশের জয়কে নিয়ে সংবাদের প্রথম পাতার খবর, “ভারতকে হারিয়ে বাংলাদেশের মেয়েদের স্মরণীয় জয়”।

রবিবার শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে সিরিজের প্রথম ম্যাচে বৃস্টি আইনে ভারতকে ৪০ রানে হারায় বাংলাদেশের নারী ক্রিকেট দল। আগে ব্যাট করে বাংলাদেশের ৪৩ ওভার সব উইকেট হারিয়ে ১৫২ রান তোলে।

বৃষ্টির কারণে খেলা বন্ধ থাকায় খেলা ৪৪ ওভারে নির্ধারণ করা হয় এবং জয়ের জন্য ভারতেকে ১৫৪ রানের লক্ষ্য দেয়া হলে তারা ৩৫.৫ ওভারে অল-আউট হয় ১১৩ রানে। ঐতিহাসিক এই জয়ে মারুফা ৪টি ও রাবেয়া ৩টি উইকেট নেন।

অন্যান্য খবর

ঢাকা -১৭ আসনের উপ নির্বাচনকে ঘিরে দেশ রূপান্তরের প্রথম পাতার খবর, “জৌলুস নেই, কৌতুহল নেই” বলা হচ্ছে, এই নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীসহ আটজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করলেও প্রধান বিরোধী দল বিএনপিসহ অন্যরা এই উপনির্বাচনে অংশ নিচ্ছে না।

হেভিওয়েট বা রাজনৈতিকভাবে পরিচিত কোন ব্যক্তি ও প্রার্থী এই নির্বাচনে নিই ফলে। অনেকটা জৌলু হারিয়েছে নায়ক আকবর হোসেন পাঠান ফারুকের মৃত্যুতে শূন্য ঘোষণা করা এই আসনের উপনির্বাচন। তবে একদিকে বুদ্ধিজীবী হিসেবে পরিচিত অধ্যাপক মোঃ আরাফাত অন্যদিকে আলোচিত স্বতন্ত্র প্রার্থী ইউটিউবার মোঃ আশরাফুল আলমকে হিরো আলমকে নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে ব্যাপক আগ্রহ তৈরি হয়েছে।

সেইসাথে প্রাক নির্বাচনী তথ্যানুসন্ধানে ইইউ দল সফরে থাকা অবস্থায় এই নির্বাচন নিয়ে রাজনৈতিক মহর ও সাধারণদের মধ্যে কৌতূহল রয়েছে।

সমকালের পেছনের পাতার খবর, “পুলিশ প্রশাসনে বড় পরিবর্তন”। প্রতিবেদনে নির্বাচনের আগে পুলিশ প্রশাসনে বড় ধরণের পরিবর্তনের বিষয়টি উঠে এসেছে। একমাস পেরোতেই আবার পুলিশের মাঠ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন পদে এই রদবদল হয়েছে। এ ধাপের ১৬ উপমহাপরিদর্শক (ডিআইজি) ও ৩৫ অতিরিক্ত ডিআইজি পদমর্যাদার কর্মকর্তা বদলি হয়েছেন।

এদিকে পুলিশের উচ্চপর্যায়ে ৭২০ জন কর্মকর্তার পদোন্নতি চেয়েছে পুলিশ সদর দপ্তর এরই মধ্যে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ বিষয়টি প্রস্তাব পাঠানো হয়।

প্রস্তাবটি পাওয়ার পর তো মূল্যায়নের জন্য একটি কমিটি গঠন করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। সংশ্লিষ্টরা বলছেন শূন্য পদ না থাকলেও সুপার নিউমারানি অতিরিক্ত পদোন্নতি দিয়ে ইনসিটু করা যেতে পারে। ইনসিটু হল পদন্নোতির পরেও আগের পদে দায়িত্ব পালন।

ইত্তেফাকের প্রথম পাতার খবর, “জেপি নেতা সালামকে নৃশংসভাবে হত্যা”। প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, জাতীয় পার্টি- জেপি’র কেন্দ্রীয় নেতা আব্দুস সালাম বাহাদুরকে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে।”।

শনিবার মধ্যরাতে লাল রঙের একটি প্রাইভেটকার থেকে শ্যামলীর সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের সামনে তার লাশ এক তরুণ ও এক তরুণী ফেলে যায়। পরে পথচারীরা উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

হাত ও হাতের কব্জি ভেঙে এবং পায়ে ড্রিল মেশিন দিয়ে ছিদ্র করে তাকে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়। রবিবার বিকেলে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে লাশের ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

বিদ্যুৎ খাত নিয়ে বণকি বার্তার প্রথম পাতার খবর, “আইপিপি থেকে ডলারে বিদ্যুৎ ক্রয় বিপিডিবির আত্মঘাতী পথ”। প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, ডলারের বিপরীতে টাকার দরপতনের কারণে দেশে গ্যাসভিত্তিক যে তিনটি বড় বিদ্যুৎ কেন্দ্র চলতি বছর চালু হওয়ার কথা রয়েছে সেখান থেকে বিদ্যুৎ কিনতে গিয়ে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড -বিপিডিবিকে বিপুল আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়তে হতে পারে।

প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, প্রায় ২০০০ মেগাওয়াট উৎপাদন সক্ষমতার কেন্দ্রগুলো নির্মাণ করছে সামিট পাওয়ার, ইউনিক ও রিলায়েন্স গ্রুপ। নতুন এ কেন্দ্রগুলো থেকে বিদ্যুৎ কিনতে ২০১৯ সালে ক্রয় চুক্তি করে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিপিডিবি)।

আর এসব চুক্তিতে ইউনিটপ্রতি বিদ্যুতের দাম হিসাব করা হয় ডলারে। ওই সময়ে প্রতি ডলার ৮০ টাকা ধরে চুক্তি হয়েছিল। দুই বছরের বেশি সময়ের ব্যবধানে ডলারের বিনিময় মূল্য ২৮ শতাংশ বেড়ে এখন ১০৯ টাকার মধ্যে ওঠানামা করছে।

চালুর পর তাই এ তিন কেন্দ্রের বিদ্যুৎ মূল্য কিংবা ক্যাপাসিটি চার্জ দিতে হবে ডলারের চলতি বিনিময় হার ধরে। দেশের বেসরকারি খাতের বিদ্যুৎ কেন্দ্র (আইপিপি) থেকে এভাবে বৈদেশিক মুদ্রায় বিদ্যুৎ কেনাকে আত্মঘাতী পথ হিসেবে দেখছেন জ্বালানি বিশেষজ্ঞরা।

তাই দেশের আর্থিক পরিস্থিতি বিবেচনায় আইপিপিগুলোর সঙ্গে চুক্তিতে স্থানীয় মুদ্রার একটা সুযোগ রাখা যেত বলে মনে করছেন অর্থনীতিবিদরা। -সূত্র : বিবিসি বাংলা

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017
Developed By

Shipon