আজ শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৭:৫৪ পূর্বাহ্ন

Logo
শিরোনামঃ
বিএমএসএফ’র বাহরাইন শাখার নতুন কমিটি অপচিকিৎসার অভিযোগ করায় প্রাণনাশের হুমকি! গৌরীপুরে বিএমএসফ’র উদ্যোগে মহান শহিদ ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন রাষ্ট্রভাষা সংগ্রাম পরিষদের আহ্বায়কের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন গৌরনদীতে শ্রদ্ধা-ভালবাসায় ভাষা শহিদদের স্মরণ সাংবাদিক মনজুরুল নিহতের ৬ দিন পর মামলা, বিএমএসএফ’র ন্যায় বিচার দাবি ভাষা আন্দোলনের শহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদন আজ মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস বরিশালে ক্ষুদ্র মৎস্যজীবী জেলেদের বিক্ষোভ সমাবেশ নিত্যপণ্যের দাম সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে আনার দাবীতে মানববন্ধন
বাংলাদেশের নির্বাচন প্রক্রিয়া দেশের জনগণের দ্বারা নির্ধারণ করা হোক : নয়াদিল্লি

বাংলাদেশের নির্বাচন প্রক্রিয়া দেশের জনগণের দ্বারা নির্ধারণ করা হোক : নয়াদিল্লি

 

বাংলাদেশের নির্বাচন প্রক্রিয়া দেশের জনগণের দ্বারা নির্ধারণ করা হোক : নয়াদিল্লি

পল্লী জনপদ ডেস্ক॥

বাংলাদেশের মানুষ যেভাবে চায় সেভাবেই নির্বাচন: ভারত কালের কন্ঠের প্রধান শিরোনাম এটি। এতে বিস্তারিত বলা হয় ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বৃহস্পতিবার (০৩ আগস্ট) বলেছে, নয়াদিল্লি চায় বাংলাদেশের নির্বাচন এবং গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া দেশের জনগণের দ্বারা নির্ধারণ করা হোক। বাংলাদেশের আসন্ন নির্বাচন নিয়ে ভারত আনুষ্ঠানিকভাবে এই প্রথম কোনো মন্তব্য করল। ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক সাপ্তাহিক সংবাদ সম্মেলনে মুখপাত্র অরিন্দম বাগচি বলেন, ‘বাংলাদেশের জনগণ যেভাবে চাইবে, সেভাবেই ভোট হবে। আমরা সেটাই মেনে নেব।’ তবে নির্বাচন শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

এদিকে জনগণ যেভাবে চায় বাংলাদেশের নির্বাচন সেভাবেই হওয়া উচিত: ভারত। মানবজমিনের এই খবরটি ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বক্তব্য নিয়ে।

মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচি বৃহস্পতিবার সাপ্তাহিক সংবাদ ব্রিফিংয়ে এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, বাংলাদেশের জনগণ যেভাবে চায় সেভাবেই দেশটির নির্বাচন এবং গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াগুলো অনুষ্ঠিত হতে হবে। বাংলাদেশ পরিস্থিতি নয়াদিল্লি নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে। উল্লেখ্য, এতোদিন ধরে বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে বিভিন্ন দেশ কথা বললেও এই প্রথম ভারত আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের প্রাথমিক মতামত ব্যক্ত করলো।

একই খবর নিয়ে ইংরেজি দৈনিক ঢাকা ট্রিবিউনের শিরোনাম India Wants Bangladesh’s Election as planned.

এতে বলা হয় দিল্লী বাংলাদেশে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ইস্যুতে কোন মন্তব্য করেনি।

বিবেকের চাপ অনুভব করছি বিদেশি চাপ নয়: কাদের – মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার হাসের সঙ্গে বৈঠকের পর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের এই বক্তব্য নিয়ে শিরোনাম করেছে দৈনিক যায় যায় দিন।

এতে লেখা হয়েছে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে আওয়ামী লীগ বিদেশিদের কোনো চাপ অনুভব করছে না বলে জানিয়েছেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। মার্কিন রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে সোয়া এক ঘণ্টার বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, ‘আমরা চাপ অনুভব করব কেন? ফ্রি, ফেয়ার ইলেকশন করা আমাদের কমিটমেন্ট। এখানে চাপ অনুভব করব কেন? যদি বলেন, চাপ, তাহলে বিবেকের চাপ।’

দলগুলোই ঠিক করবে নির্বাচন পদ্ধতি – দেশ রুপান্তরের শিরোনাম। খবরটি আওয়ামী লীগের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূতের বৈঠক ঘিরে।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে বৈঠক শেষে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত পিটার হাস বলেছেন, তার দেশ কোনো একটি নির্দিষ্ট দলকে সমর্থন করে না। তারা চায় একটি গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া, যা বাংলাদেশের জনগণকে তাদের পরবর্তী সরকার বেছে নিতে দেবে। নির্বাচন পদ্ধতি ঠিক করবে রাজনৈতিক দলগুলো। তারা অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ, সহিংসতামুক্ত নির্বাচন সমর্থন করেন।

আজ সারাদেশে জেলা ও মহানগরে বিএনপির প্রতিবাদ সমাবেশ – দৈনিক সংবাদের শিরোনাম। এতে বলা হয় বিএনপি দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও তার স্ত্রী জুবাইদা রহমানের বিরুদ্ধে সাজার রায়ের প্রতিবাদে আজ সারা দেশের জেআ ও মহানগর পর্যায়ে প্রতিবাদ সমাবেশ করবে বিএনপি। ঢাকায় নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বেলা দুইটায় এই কর্মসূচী শুরু হবে। এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন বিচারব্যাবস্থাকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছে সরকার।

SC lawyers clash over Tarique-Zubaida verdict – ইংরেজি দৈনিক নিউ এজের শিরোনাম এটি। বলা হয় তারেক রহমান ও তার স্ত্রী জোবাইদা রহমানের রায়কে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ ও বিএনপিপন্হী আইনজীবিদের মধ্যে হট্টগোলের ঘটনা ঘটেছে, যাতে সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদকের কক্ষ ভাংচুর করা হয়।

সভা সমাবেশে ভাড়াটে কর্মী রেট পুরুষ ৪০০ নারী ৬০০ – দৈনিক দেশ রুপান্তরের শিরোনাম। এতে বলা হয় নির্বাচন উপলক্ষে ভাড়াটে কর্মীর চাহিদা তুঙ্গে। কারও পেশা আবার কেউবা অসহায় হয়েই এ কাজে নেমেছেন।

দায়মুক্ত হামলা-ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরের উপর হামলার খবরটির এমন শিরোনাম করেছে দৈনিক মানবজমিন। পত্রিকাটি লিখেছে নুরের উপর ২৫ বার আক্রমণ হয়েছে, বিচার হয়নি একটিরও।

শুরুটা সেই কোটা সংস্কার আন্দোলন থেকে। তখন থেকেই হামলা, মামলা, নির্যাতন যেন পিছু ছাড়ছে না ডাকসু’র সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরের। ২০১৮ সালে ডাকসু’র নির্বাচনে জয়ের পর থেকেই ভিন্ন পরিস্থিতি তৈরি হতে থাকে। দেশের বিভিন্ন জায়গায় একের পর এক হামলার শিকার হন নুরুল হক নুর। প্রতিটি হামলার ক্ষেত্রেই অভিযোগ আসে ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে। তবে ছাত্রলীগ বার বারই তা অস্বীকার করে।

ওমানে এমপি আটক বাংলাদেশের জন্য বিব্রতকর – বাংলাদেশ প্রতিদিনের খবর।

বলা হচ্ছে ওমানে অনুমতি ছাড়া সভা করতে গিয়ে এমপি আটক হওয়া ও মুচলেকায় মুক্তির ঘটনা বাংলাদেশের জন্য বিব্রতকর বলে মন্তব্য করেছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সেহেলি সাবরিন। তিনি গতকাল পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সাপ্তাহিক ব্রিফিংয়ে তাদের গ্রেফতার ও মুক্তির বিষয়ে বিস্তারিত তুলে ধরেন। মুখপাত্র বলেন, এ ঘটনা প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য বিব্রতকর। আমরা আশা করি, প্রবাসীরা যে দেশে থাকেন, তারা সেখানকার নিয়মকানুন মেনে চলবেন।

বিতর্কিত দুই এমডিকে আবার নিয়োগ – দৈনিক প্রথম আলোর শিরোনাম।

বলা হচ্ছে পানিসংকটের সমাধান না হওয়া, প্রকল্পের ধীরগতি, নিয়োগে অনিয়মসহ নানা বিতর্কের পরও ঢাকা ও চট্টগ্রাম ওয়াসার দুই ব্যবস্থপনা পরিচালককে (এমডি) আরও তিন বছরের জন্য নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে ঢাকা ওয়াসার তাকসিম এ খান সপ্তমবার ও চট্টগ্রাম ওয়াসার এ কে এম ফজলুল্লাহ অষ্টমবারের মতো নিয়োগ পেলেন। দুজনের মেয়াদ চলতি বছরের অক্টোবরে শেষ হচ্ছে। এর দুই মাস আগেই গতকাল বৃহস্পতিবার স্থানীয় সরকার বিভাগ পুনরায় নিয়োগের প্রজ্ঞাপন জারি করে।

ডেঙ্গুতে এ বছর মৃত্যু আগের সব হিসাব ছাড়ালো – দৈনিক সংবাদের অন্যতম প্রধান শিরোনাম এটি। খবরে বিস্তারিত বলা হচ্ছে বাংলাদেশে এবছর ডেঙ্গুর প্রকোপ এখনও চলার মধ্যেই মৃত্যুর সংখ্যা আগের ইতিহাস ছাড়িয়ে গেল। ২৪ ঘণ্টায় আরো ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে এডিস মশাবাহিত এই রোগে, তাদের যোগ করে এবছর এপর্যন্ত মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়াল ২৮৩। দেশে এর আগে ২০২২ সালে ডেঙ্গুতে এক বছরে সর্বাধিক ২৮১ জনের মৃত্যু হয়েছিল।

ঘরে ঘরে জ্বর, ২৫ ভাগ ডেঙ্গু – কালের কন্ঠের প্রধান শিরোনাম। খবরে বলা হয় রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশে জ্বর ছড়িয়ে পড়েছে। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে মাথাব্যথা, সর্দিকাশি, বমি হওয়া, গলা ব্যথা, ডায়রিয়া, চোখ লাল হওয়া ও পেটে ব্যথার মতো উপসর্গ। এতে ডেঙ্গু সন্দেহে হাসপাতাল ও রোগ নির্ণয় কেন্দ্রে পরীক্ষার জন্য ভিড় করছে আক্রান্ত ব্যক্তিরা। পরীক্ষায় দেখা যাচ্ছে, বেশির ভাগই মৌসুমি জ্বর। তবে ১৫ থেকে ২৫ শতাংশ রোগীর ডেঙ্গু শনাক্ত হচ্ছে। এতে আতঙ্কিত না হয়ে চিকিৎসা নেওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

এদিকে ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ে প্রথম আলো শিরোনাম করেছে– বাজারে স্যালাইনের সংকট। এতে বলা হচ্ছে রোগী বাড়তে থাকায় স্যালাইনের চাহিদা অনুযায়ী সরবরাহ কম। ঘাটতি পূরণে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়া জরুরী।

বণিক বার্তার শিরোনাম – রাজধানীর বাইরে ডেঙ্গু আরো প্রাণঘাতী রুপ নেয়ার আশঙ্কা। এতে বলা হয় এতদিন রাজধানী ঢাকার তুলনায় সারা দেশে রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধির হার ছিল দ্বিগুণ। এখন ঢাকার বাইরের জেলাগুলোয় ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তির সংখ্যা রাজধানীকেও ছাড়িয়েছে।

অন্যান্য খবর

ভরা মৌসুমেও ইলিশ নাগালের বাইরে – দৈনিক কালবেলার শিরোনাম। পত্রিকাটি বলছে কাগজে-কলমে ইলিশের ভরা মৌসুম চললেও পর্যাপ্ত পরিমাণে ধরা পড়ছে না এই জাতীয় মাছ। এ জন্য বাজারে গিয়েও ইলিশের নাগাল খুঁজে পাচ্ছেন না নিম্ন ও মধ্যবিত্ত শ্রেণির মানুষ।

এদিকে ক্রিকেটার তামিম ইকবালের ওয়ানডে অধিনায়কের দায়িত্ব ছাড়ার খবরটি ছাপিয়েছে প্রায় সবকয়টি জাতীয় পত্রিকা।

যুগান্তরের শিরোনাম – অধিনায়কত্ব ছাড়লেন তামিম ইকবাল। খবরে বলা হয় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসানের বাসায় তার সঙ্গে বৈঠকের পর বৃহস্পতিবার রাতে এ কথা জানান বাঁ-হাতি এ ওপেনার। তামিম ইকবাল বলেন, ‘দলের ভালোর জন্য নেতৃত্ব ছাড়ছি। এখন খেলায় আরও বেশি মনোযোগ দেব। তবে ইনজুরির কারণে তার এশিয়া কাপে খেলা হবে না।

Tamim steps down as ODI captain – ইংরেজি দৈনিক ডেইলি স্টারের শিরোনাম। এতে বলা হয় তামিম ইকবাল ওয়ানডে অধিনায়কের দায়িত্ব থেকে সরে দাড়িয়েছেন তবে এ বছরের বিশ্বকাপে দেশের হয়ে খেলতে চান তিনি।

কিশোরী ফুটবলারদের মারধরে জড়িতদের শাস্তি দাবি– ৪৫ বিশিষ্টজনের নিন্দা। সমকালের খবর। এতে বলা হয় খুলনার বটিয়াঘাটা উপজেলায় কিশোরী ফুটবলারদের মারধরের প্রতিবাদে মানববন্ধন হয়েছে। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, হাফপ্যান্ট ও জার্সি পরে ফুটবল খেলার কারণে ৪ কিশোরী ফুটবলারকে মারধর করা হয়। এ ধরণের হামলা মেয়েদের ফুটবল খেলার অগ্রযাত্রার জন্য হুমকি। বক্তারা এ ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। -বিবিসি বাংলা

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2017
Developed By

Shipon